ঢাকাWednesday , 14 December 2022
  1. অপরাধ
  2. অভিনন্দন
  3. অর্থনীতি
  4. আইন ও বিচার
  5. আটক
  6. আত্মহত্যা
  7. আন্তর্জাতিক
  8. আর্থিক সহায়তা
  9. আলোচনা সভা
  10. আহত
  11. উদ্বোধন
  12. এক্সিডেন্ট
  13. ওয়াজ মাহফিল
  14. কৃষি বার্তা
  15. খুন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আবার কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড: ফরিদ, সম্পাদক মুজিব মহোদয়

Link Copied!

আবার কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড: ফরিদ, সম্পাদক মুজিব মহোদয়

শফিউল হক রানা,কক্সবাজার প্রতিনিধি

, ১৩ ডিসেম্বর ২০২২

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন শেষে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এড :ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীকে সভাপতি ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান মহোদয় কে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়েছে।এড: ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী। এতদিন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং মুজিবুর রহমান মহোদর। সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছিলেন। মঙ্গলবার ১৩ ডিসেম্বর বিকেলে নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ। এছাড়া, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হিসেবে পরাজয় বরণ করা ৪ বারের সংসদ সদস্য। খান বাহাদুর মোস্তাক আহমদ চৌধুরীকে আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য করা হয়েছে।
জেলা আওয়ামী লীগের সূত্র মতে, এবারের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিলে যারা নেতৃত্বে আসতে চেয়েছিলেন তাদের আবেদন নিয়ে দলের উচ্চপর্যায়ে বৈঠক হয়। চলমান সময়, আগামী নির্বাচন সবকিছু বিবেচনা করে বৈঠকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক এড: ফরিদ-মুজিব মহোদয় কে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।
এড: ফরিদ-মুজিবের মহোদয়ের ঘনিষ্ঠ ১ সূত্র নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, গেল ৭ ডিসেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের সমাবেশে নেতাকর্মীদের উপস্থিতি দেখে সন্তুষ্ট হয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা। এছাড়া বিগত জেলা পরিষদ নির্বাচনের আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মোস্তাক আহমেদ চৌধুরীর পক্ষে কাজ করা এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নির্বাচন পরবর্তী সাক্ষাতেই ভাগ্য বদলে গেছে এড:ফরিদ ও মুজিবের মহোদয়ের। গত ৭ বছরে নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে হাইকমান্ড তিক্ত-বিরক্ত হলেও শেষ সময়ে এসে দলীয় কর্মকাণ্ডে নিজেকে দলের জন্য অপরিহার্য হিসেবে উপস্থাপন করতে পেরেছেন মুজিব ও ফরিদ মহোদয়। ফলে, অতীত ভুলে আবার ওদের উপর ভরসা করেছে দলের হাইকমান্ড। এছাড়া কেন্দ্রীয় সম্মেলন ও কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে কক্সবাজার সদর উপজেলা, কক্সবাজার পৌরসভা, ঈদগাঁও, রামু, উখিয়া, টেকনাফ, মহেশখালী, কুতুবদিয়া, চকরিয়া, পেকুয়া ও মাতামুহুরীসহ মোট ১১টি সাংগঠনিক উপজেলার মধ্যে ১০টিতে সম্মেলন সম্পন্ন করতে পেরেছেন তারা। এ কারণে এই দুইজনকে চেনেন সব নেতাকর্মীরা। তাই জাতীয় নির্বাচনের আগের কঠিন সময়টি রাজনৈতিকভাবে পাড়ি দিতে ফের তাদের ওপরেই ভরসা করেছে কেন্দ্র। কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের দেওয়া তথ্য থেকে আরও জেনে গেছে, ২০১৬ সালের ২৮ জানুয়ারি সর্বশেষ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। এর ছয় বছর ১০ মাস পর ১৩ ডিসেম্বর শেখ রাসেল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। উদ্বোধনী বক্তব্যে কেউ বিএনপিকে না চিনলেও তিনি কবরস্থানও চেনে না মন্তব্য করে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ বলেন, তারা হত্যা-খুন, লুটপাটের রাজনীতি করে। তাই যে হাতে তারা বিএনপি আক্রমণ করতে আসবে সে হাত ভেঙে দেবেন। যেন আর আক্রমণ করতে না পারে। তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ স্বাধীনতার সুস্পষ্ট ঘোষণা। এরপর থেকে বাঙালি ঐক্যবদ্ধ হয়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছে। বয়সের ভারে বীর মুক্তিযোদ্ধারা একে একে মারা যাচ্ছেন। কিন্তু বাংলাদেশ আছে, থাকবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। একমাত্র শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে এটা সম্ভব হয়েছে। দেশের উন্নয়ন শান্তির জন্য শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প হয়ে ওঠেনি। কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি সুপার ফ্লপ, তারা পাগল হয়ে গেছে, এখন বেপরোয়া আচরণ করছে। ১০ ডিসেম্বর টার্গেট মিস করেছে- কোয়ার্টার ফাইনালে আমরাই গোল দিয়েছি। সেমিফাইনালেও আমরা গোল করবো; ফাইনালেও আমরাই জিতবো। ফাইনাল খেলা মানে আগামীর সংসদ নির্বাচন, সেখানে আমরা জিতবোই। কক্সবাজারবাসী তৈরি হোন, খেলা হবে।সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আহমদ স্বপন, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল মোস্তফা, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সুজিত রায় নন্দি, আমিনুল ইসলাম আমিন, কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম, মহেশখালীর সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার সদর আসনের সাইমুম সরোয়ার কমল, টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল বশর, উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, কুতুবদিয়া সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবরসহ অনেকে বক্তব্য দেন।এদিকে, এত প্রতীক্ষার পরও কাউন্সিলে নেতা নির্বাচন না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন নেতৃত্ব প্রত্যাশীরা। তাদের মতে, এভাবে কেন্দ্র থেকে কমিটি মনোনয়ন হওয়া যোগ্য নেতৃত্ব সৃষ্টির প্রতিবন্ধক। দায়িত্বপ্রাপ্তরা ‘মাইম্যান’ তৈরিতে ব্যস্ত হওয়ায় ত্যাগী ও তৃণমূল স্তম্ভিত থাকে।এর আগে দীর্ঘ প্রতীক্ষিত সম্মেলন উপলক্ষে সকাল ১০টা থেকে মিছিলে মিছিলে হাজারও নেতাকর্মী সম্মেলন স্থলে আসতে শুরু করেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যের আগমুহূর্ত পর্যন্ত তৃনমূল আওয়ামীলীগের মিছিল নগরী পরিণত পুরো কক্সবাজার।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।