ঢাকাWednesday , 7 December 2022
  1. অপরাধ
  2. অভিনন্দন
  3. অর্থনীতি
  4. আইন ও বিচার
  5. আটক
  6. আত্মহত্যা
  7. আন্তর্জাতিক
  8. আর্থিক সহায়তা
  9. আলোচনা সভা
  10. আহত
  11. উদ্বোধন
  12. এক্সিডেন্ট
  13. ওয়াজ মাহফিল
  14. কৃষি বার্তা
  15. খেলাধুলা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ডাসারে বিয়ের প্রাপ্ত বয়স হলেও বিয়ে বন্ধের নির্দেশ ইউএনও”র

Link Copied!

ডাসারে বিয়ের প্রাপ্ত বয়স হলেও বিয়ে বন্ধের নির্দেশ ইউএনও”র

ষ্টাফ রিপোর্টার
মানবাধিকার প্রতিদিন
মোঃ হেমায়েত হোসেন খান

মাদারীপুরের ডাসারে মেয়ের বিয়ের বয়স হলেও বিয়ে বন্ধও এক ঘন্টার মধ্যে গেট ভাঙ্গার নির্দেশ দিলেন ডাসার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সারমীন ইয়াছমীন।

মেয়ের পরিবারের লোকজন বলেন বিয়ের বয়স হয়েছে এবং জন্মনিবন্ধন মেয়ের কাছে,সে ঢাকা থেকে নিয়ে আসবে।
গতকাল সকালে এ ঘটনা ঘটে।

সরোজমিন ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা যায়,ডাসার উপজেলার ডাসার গ্রামের মোঃ রুহুল আমিন মাতুব্বরের মেয়ের বিয়ের বয়স আঠারো হলে,তার পরিবারের লোকজন পারিবারিক ভাবে পাত্র পছন্দ করে আগামী কাল বুধবার বিয়ের দিন ধার্য করেন এবং সব আয়োজন প্রায় সম্পন্ন করেন।

অতপর গতকাল সোমবার সকালে ডাসার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সারমীন ইয়াছমীন তার প্রতিনিধি হিসেবে বিয়ে বাড়িতে ডাসার ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সুশান্ত বৈদ্যকে বিয়ে বন্ধ করার জন্য পাঠান।

ইউপি সচিব বিয়ে বন্ধ করার নির্দেশ দেন এবং তার মুঠোফোন দিয়ে ডাসার ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ সজিব মাতুব্বরকে ইউএনওর সাথে কথা বলিয়ে দেন।

সে সময় ইউএনও মেম্বার সজিব মাতুব্বরকে এক ঘন্টার মধ্যে বিয়ের গেট ভাঙ্গার নির্দেশ প্রদান করেন।
ভুক্তভোগী পরিবারের লোকজন বলেন, আমাদের বাড়িতে বিয়ে বন্ধ করার জন্য ইউএনওর লোক আসে এবং মেয়ের বয়সের কাগজ দেখতে চায়।

আমরা তাদেরকে অনুরোধ করে বলি, আমার মেয়ে ঢাকায় একটি কওমী মাদ্রাসায় পড়াশুনা করেন।

তার জন্মনিবন্ধনে বয়স আঠারো হয়েছে। জন্মনিবন্ধনের কাগজ মেয়ের কাছে আছে,সে ঢাকা থেকে নিয়ে আসতেছে। তারা আমাদের কথা না শুনে বিয়ে বন্ধ এবং বিয়ের গেট ভাঙ্গার নির্দেশ দিয়ে যায়। পরে তাদের কথামত বিয়ের গেট ভেঙ্গে ফেলী।

ইউপি সদস্য সজিব মাতুব্বর বলেন, ইউপি সচিবের মুঠোফোনে ইউএনও আমাকে একঘন্টার মধ্যে বিয়ের গেট ভাঙ্গার নির্দেশ দেন ও বিয়ে বন্ধ করতে বলেন।

ডাসার ইউপি সচিব সুশান্ত বৈদ্য বলেন, ইউএনও স্যারের নির্দেশে আমি বিয়ে বাড়ি গিয়ে মেয়ের পরিবারের কাছে মেয়ের জন্মনিবন্ধনের কাগজ দেখাতে বলি, কিন্ত তারা জন্মনিবন্ধনের কাগজ দেখাতে পারে নাই বিদায়,বিয়ের গেট ভাঙ্গতে ও বিয়ে বন্ধ করতে বলে আসছি।

ডাসার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সারমীন ইয়াছমীন বলেন, আমি বিয়ে বাড়িতে লোক পাঠিয়ে ছিলাম,তারা কাগজ দেখাতে পারেনি,বিদায় বিয়ে বন্ধ ও গেট ভাঙ্গার কথা বলা হয়েছে। কাগজ না দেখাতে পারলে, মুখের কথা কি বিশ্বাস করা যায়। কাগজে বয়স হলে সমস্যা নাই।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।