ঢাকাThursday , 8 December 2022
  1. অপরাধ
  2. অভিনন্দন
  3. অর্থনীতি
  4. আইন ও বিচার
  5. আটক
  6. আত্মহত্যা
  7. আন্তর্জাতিক
  8. আর্থিক সহায়তা
  9. আলোচনা সভা
  10. আহত
  11. উদ্বোধন
  12. এক্সিডেন্ট
  13. ওয়াজ মাহফিল
  14. কৃষি বার্তা
  15. খেলাধুলা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঢাকার রাজপথ আজ রক্তাক্ত কেন এর জবাব কে দেবে

Link Copied!

ঢাকার রাজপথ আজ রক্তাক্ত কেন এর জবাব কে দেবে

ডেক্স রির্পোটার :

রাজধানী ঢাকার নয়াপল্টনে জড়ো হওয়া বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর পুলিশের হামলা ।

আগামী ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ ঘিরে কয়েকদিন ধরে বিএনপির অফিসে উপস্থিত হচ্ছিল নেতাকর্মী । এর মধ্যে বিএনপিকর্মীরা গতকাল বুধবার সকাল থেকে নয়াপল্টনে তাদের কেন্দ্রীয় কার্যালয় উপস্থিত ছিলেন ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিএনপিকর্মীরা তাদের কার্যালয়ে অবস্থান নিলে হঠাৎ বিপুল সংখ্যক পুলিশ বিএনপির কার্যালয়ে ডুকে নিরপরাধ নেতাকর্মীদের উপর হামলা করে।

এই নিয়ে পুলিশের ও বিএনপির মধ্যে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে বিকাল ৩টার দিকে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। পুলিশের অত্যাচার সয্য করতে না পেরে বিএনপি কর্মীরা ঢিল ছুড়তে শুরু করে। পুলিশ তখন গুলাগুলি ও টিয়ার শেল ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে । বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর হামলা সোয়াট সদস্যদেরও দেখা যায় সেখানে।

পল্টন থানার ডিউটি অফিসার আকরাম হোসেন বলেন, “এখানে দাঙ্গা চলছে। ঊর্ধ্বতন স্যারেরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছেন।”

ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার মধ্যে নয়া পল্টন এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ফকিরাপুল থেকে নাইটিঙ্গেল মোড় পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

পুলিশের অত্যাচার সহ করতে না পেরে বিএনপিকর্মীরা বিভিন্ন গলিতে গিয়ে আশ্রয় নিলে সেইখানে বিএনপির নেতা কর্মীদের কে পাখির মত গুলি করে সেইখানে যুবদলের কর্মী নিহত হয় ।

নয়া পল্টনের মূল সড়কে বিপুল সংখ্যক পুলিশ অবস্থান নিয়ে আছে। এছাড়া এপিসিও দেখা গেছে সেখানে।

বিএনপির অফিসে উপস্থিত জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, “নেতাকর্মীরা ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশের বিষয়ে খোঁজখবর নিতে পার্টি অফিসে এসেছিলেন। তাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে অতর্কিতে হামলা চালিয়েছে পুলিশ। টিয়ার গ্যাসে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। অনেক কর্মীকে আহত অবস্থায় আটক করে নিয়ে গেছে।”

তিনি অভিযোগ করেন, “পার্টি অফিসের ভেতরে হাজার দুয়েক নেতাকর্মী আটকা পড়েছে, তাদের মধ্যে আহত অনেকে আছে কিন্তু পুলিশ কাউকে বের হতে দিচ্ছে না।”

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে এসেছিলেন। তিনি বেরিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর সেখানে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ঢাকা মহানগর পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনার মো. হায়াতুল ইসলাম খান বলেন, “১০ তারিখে বিএনপির সমাবেশের স্থান এখনো নির্ধারণ হয়নি কিন্তু আজ নয়াপল্টন পার্টি অফিসের সামনে উভয় পাশের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বারবার অনুরোধ করার পরও রাস্তা ছেড়ে দেয়নি। পরে তাদেরকে উঠাতে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। এভাবেই সংঘর্ষের ঘটনা। পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্য আহত হয়েছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।