রবিবার , ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ || ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - বর্ষাকাল || ১০ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

দেবহাটায় সরকারি ডিসিআরকৃত জমি পুনরুদ্ধার নিয়ে মারপিটে তিনজন আহত

প্রকাশিত হয়েছে- রবিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২৩

দেবহাটায় সরকারি ডিসিআরকৃত জমি পুনরুদ্ধার নিয়ে মারপিটে তিনজন আহত

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি মোহাম্মদ রফিক সাতক্ষীরা।
শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) উপজেলার দাদপুরে এ মারপিটের ঘটনাটি ঘটে।

মারপিটে আহত দাদপুর গ্রামের মৃত খোসাল গাজীর ছেলে নূর ইসলাম গাজী জানান, দাদপুর মৌজার ১/১ (ভিপি) খতিয়ানে ৪২৬ ও ৪২৭ দাগের ৪৯ শতক জমি ১৯৮৮ সাল থেকে তার বাবা মৃত খোসাল গাজী ও চাচা জয়নাল গাজী ডিসিআর নিয়ে ভোগদখল করে আসছিলেন। বাবা খোসাল গাজী মারা যওয়ায় চলতি বছরের ১ আগস্ট জমিটি নূর ইসলাম গাজী ও তার চাচা জয়নাল গাজী ডিসিআর নবায়ন করেন। এদিকে ২-৩ বছর আগে ডিসিআরকৃত ওই জমিটি জোরপূর্বক জবরদখলে নিয়েছিলেন তাদের প্রতিবেশি খোদাবক্স গাজীর ছেলে আনারুল ইসলাম।

ডিসিআরকৃত জমিটি প্রতিপক্ষ কর্তৃক জবরদখলে নেয়ার পর থেকে তা পুনরুদ্ধারে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন সহ দৌঁড়ঝাপ চালিয়ে আসছিলেন ডিসিআর গ্রহীতা জয়নাল ও খোসালের পরিবার। শুক্রবার সকালে জয়নাল ও নূর ইসলাম তাদের জমিতে গেলে গোলযোগ বাঁধে জবরদখলকারী আনারুলের পরিবারের সাথে। একপর্যায়ে জরবদখলকারী আনারুল ও তার পরিবারের লোকজন ডিসিআর গ্রহীতা নূর ইসলাম ও তার চাচা জয়নাল গাজীকে মারপিট শুরু করেন। এসময় মো. শাহজাহান, পুটে ময়না ও সেলিনা পারভীন নামের স্থানীয় বাসিন্দারা বাঁধা দিতে গেলে তাদেরকেও পিটিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষ আনারুল গং। পরে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অপরদিকে মারপিটকালে স্বপক্ষের দু’জন আহত হয়েছে বলে দাবি করেছেন জবরদখলকারী আনারুল ইসলাম।

এব্যাপারে দেবহাটা থানার ওসি বাবুল আক্তার বলেন, ডিসিআরকৃত জমি জবরদখল ও পুনরুদ্ধার নিয়ে মারপিটের ঘটনায় কয়েকজন আহত হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।