ঢাকাTuesday , 27 December 2022
  1. অপরাধ
  2. অভিনন্দন
  3. অর্থনীতি
  4. আইন ও বিচার
  5. আটক
  6. আত্মহত্যা
  7. আন্তর্জাতিক
  8. আর্থিক সহায়তা
  9. আলোচনা সভা
  10. আহত
  11. উদ্বোধন
  12. এক্সিডেন্ট
  13. ওয়াজ মাহফিল
  14. কৃষি বার্তা
  15. খুন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পরিবেশ অধিদপ্তর সহ স্থানীয় প্রশাসন নিরব সাতকানিয়ায় ইট ভাটার কারণে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ

Link Copied!

পরিবেশ অধিদপ্তর সহ স্থানীয় প্রশাসন নিরব সাতকানিয়ায় ইট ভাটার কারণে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ

কামরুল ইসলাম চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামর জেলার সাতকানিয়া উপজেলা গুলোতে বেঙ্গের ছাতার মতো গড়ে উঠা ইট ভাটা গুলোতে ইট তৈরি করতে পাহাড় ও ফসলি জমির টপ সয়েল কেটে পোড়ানো হচ্ছে । অননুমোদিত ভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটাগুলো নিয়মিত ফসলি জমির টপ সয়েল ধ্বংস করছে। এতে জমির ঊর্বরতা ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাচ্ছে বলে মন্তব্য করে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর ফলে ফসল উৎপাদনে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে দিনের পর দিন ফসলি জমি ও পাহাড় আমাদের মাঝ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে ।

সূত্র মতে জানাযায় , চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় মোট ১৫০ টির মতো ইটভাটা রয়েছে। এসব ইটভাটার অধিকাংশেরই কোনো লাইসেন্স নেই। পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমোদন রয়েছে হাতেগোনা কয়েকটির। আবার সাতকানিয়ার চুড়ামনির ডালা সহ স্থানে বনের পাশে ইটভাটা তৈরি করে কাঠ পোড়ানোরও অভিযোগ রয়েছে। অভিযোগ রয়েছে- চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার ইটভাটাগুলো আবাদী জমির টপ সয়েল ও পাহাড় ধ্বংস করছে। প্রায় প্রতিটি ইটভাটাই টপ সয়েল থেকে মাটির সংস্থান করছে। যে মাটি পুড়িয়ে ইট তৈরি করা হচ্ছে। চট্টগ্রামের শস্য ভাণ্ডার খ্যাত সাতকানিয়ার শিশু তলা থেকে তিন খালের মুখ পযন্ত মহাসড়কের দুই পাশে গড়ে তোলা হয়েছে বেশ কয়েকটি ইটভাটা।

এসব ইটভাটায় হরদম ব্যবহৃত হচ্ছে ফসলি জমির টপ সয়েল। স্কেভেটরের মতো আধুনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে নিয়মিত টপ সয়েল সাবাড় করা হচ্ছে। ট্রাকে ট্রাকে মাটি তুলে নেয়া হচ্ছে ফসলি জমি থেকে। শুধু তাই নয় সাতকানিয়া ও বাঁশখালীসহ বিভিন্ন অঞ্চলে টপ সয়েল সাবাড়ের মহোৎসব চলছে। প্রতিটি ইটভাটাকে কেন্দ্র করে টপ সয়েল কেটে পাহাড়ের মতো করে জড়ো করা হচ্ছে। যা দিয়ে ইট তৈরি হবে।

ধানী জমি কিংবা আবাদী জমির টপ সয়েল খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ বলে উল্লেখ করে সাতকানিয়া উপজেলার কৃষি বিভাগের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, রাতে দিনে টপ সয়েল কাটা হচ্ছে। আমাদের চোখের সামনেই জমির সর্বনাশ করা হচ্ছে। কিন্তু আসলে আমাদের কিছু করার উপায় নেই যেহেতু আমাদের নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার ভূমি এবং পরিবেশ অধিদপ্তর নির্বতা পালন করছেন । প্রভাবশালী লোকজন সবকিছু ম্যানেজ করে রাতে দিনে টপ সয়েল কাটছে। প্রকাশ্যে দিনের বেলায় স্কেভেটর দিয়ে টপ সয়েল কাটা হলেও কেউ বাধা দেয় না। এতে করে দিনে দিনে তারা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠছে।

সূত্র বলেছে, জমির টপ সয়েল কাটার ফলে শুধু ঊর্বরতাই নষ্ট হচ্ছে না, একই সাথে জমি নিচু।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।