ঢাকাশনিবার , ১৪ অক্টোবর ২০২৩
  1. অগ্নিকান্ড
  2. অনুষ্ঠান
  3. অপরাধ
  4. অবৈধ বালু উত্তোলন
  5. অভিনন্দন
  6. অভিযোগ
  7. অর্থনীতি
  8. আইন ও বিচার
  9. আওয়ামী লীগ
  10. আওয়ামী লীগে
  11. আক্রান্ত
  12. আটক
  13. আত্মহত্যা
  14. আদালত
  15. আনন্দ মিছিল

পাটগ্রামে রাস্তার অভাবে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ৩০টি পরিবারকে 

আশরাফ আলী সিদ্দিকী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:
অক্টোবর ১৪, ২০২৩ ৮:৪০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পাটগ্রামে রাস্তার অভাবে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ৩০টি পরিবারকে
আশরাফ আলী সিদ্দিকী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:
লালমনিরহাটের পাটগ্রামে রাস্তার অভাবে ৩০টি পরিবারের সদস্যদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। চলাচলের জন্য নির্ভর করতে হচ্ছে খেতের আইলের ওপর। এই আইলও মাঝেমধ্যে বন্ধ করে দেন জমির মালিকেরা। তখন জনপ্রতিনিধিদের ধরে চলার পথ উন্মুক্ত করতে হয়।
উপজেলার দহগ্রাম ইউনিয়নের সৈয়দপাড়ার ভুক্তভোগী বাসিন্দারা দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে এ সমস্যা নিয়ে বসবাস করছেন। তাঁরা জানান, যাবে না।’ শুধু চলাচলের রাস্তার অভাবে শিক্ষার্থী, কৃষকসহ সবার জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।
সম্প্রতি সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, খেতের আইল দিয়ে প্রায় আধা কিলোমিটার পথ পেরিয়ে চলাচল করছেন সৈয়দপাড়ার লোকজন। আইলে একজনের বেশি চলাচল করার উপায় নাই। বিপরীত দিক থেকে একজন এলে অপরজনকে চাষের খেতে নেমে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। এতে খেতের ধানগাছ একটু হেলে গেলে জমির মালিকেরা বাঁশের বেড়া বা খুঁটি দিয়ে অনেক সময় আইল বন্ধ করে দেন। এ পর্যন্ত ১০ বারের বেশি এমন ঘটনা ঘটেছে।
সৈয়দপাড়ার মোস্তফা হাসান সাহার সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী। সে বলে, বিদ্যালয়ে যেতে খুব কষ্ট হয়য়। বৃষ্টি ও বন্যার সময় কালাপানি পার হয়ে বিদ্যালয়ের পোশাক পরতে হয়।
স্থানীয় বাসিন্দা কুদ্দুস আলী বলেন, ‘২৫ বছর ধরে পরিবার নিয়ে এখানে বসবাস করছি। চলাচলের রাস্তা না বাড়ি থেকে খেতের আইল পেরিয়ে মূল সড়কে যাচ্ছেন দুই নারী থাকায় কত যে কষ্ট তা বলে শেষ করা
আইলে বেড়া দেওয়ার বিষয়ে জমির মালিকদের একজন সৈয়দ ফাতেহ আলী প্রধান বলেন, ‘মানবিক কারণে আমরা তাঁদের চলাচল করতে দিই। অনেক সময় খেত রক্ষায় শরিকেরা বাঁশের বেড়া দেন। তবে চলাচলে বাধা দেওয়া হয় না।
এ নিয়ে কথা হলে দহগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান বলেন, ‘যাতায়াতের রাস্তা না থাকায় ওই এলাকার বাসিন্দারা অনেক কষ্টে থাকেন। রাস্তার জায়গার জন্য জমির মালিকদের নিয়ে অনেকবার চেষ্টা করা হয়েছে। কেউ জমি দেবে না; বেচবেও না। সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ ছাড়া রাস্তা তৈরি করা সম্ভব নয়।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে ওই এলাকার বাসিন্দারা, যোগাযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
#ছবি: রাস্তার অভাবে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে দহগ্রামের সাধারণ মানুষদের।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।

Design & Developed by BD IT HOST